মুসলিম পারিবারিক আইনের আলোকে হেবা (Hiba) বা দানের বিধান

মুসলিম পারিবারিক  আইনে কোন মুসলিম অন্য কোন মুসলিম কে কোন বিনিময় ছাড়া সম্পত্তি হস্তান্তর করলে তাকে   হেবা ( Hiba ) বা দান বলা হয়। এটা বেশির ভাগ সময় স্থাবর বা অস্থাবর সম্পত্তি হস্তান্তরে শোনা যায়। একজন মুসলিম ব্যাক্তি তার সম্পূর্ণ বা আংশিক  সম্পত্তির যে কোন অংশ হেবা বা দান করতে পারেন। সচরাচর ক্রয়-বিক্রয়ের মধ্যে বিনিময় বিদ্যমান কিন্তু হেবা বা দানের ক্ষেত্রে  এমন হয় না অর্থাৎ কোন বিনিময় নেই।

যেমনঃ সুবাহান সাহেব এর এক মাত্র সন্তান মিলি। তিনি তার সমুদয় সম্পদ মেয়েকে দিতে চান। তিনি চান না তার ভাই আসাদ কিংবা তার ভাইয়ের সন্তান মুরাদ, সুবাহান সাহেবের সম্পদের মালিক হোক। তাহলে এখন সুবাহান সাহেব কি করতে পারেন?

এতমত অবস্থায় সুবাহান সাহেব তার সমুদয় সম্পদ মেয়ে কে দান করে দিতে পারেন। এতে মিলি সুবাহান সাহেবের জীবদ্দশায় সম্পদের মালিক হতে পারবেন।

          প্রতীকী চিত্র: হেবা ( Hiba )  বা দান।

সুপ্রিয় পাঠক বৃন্দ অাজ আপনাদের মাঝে দান সম্পর্কীত সাধারণ প্রশ্ন গুলা  তুলে ধরা হল।

 

হেবা ( Hiba ) বা দান   হিসেবে গণ্য হওয়ার তিনটি শর্তঃ

১। দাতা কে অবশ্যই তার সম্পত্তি হেবা বা দান করার আগে ঘোষণা দিতে হবে।

২। যাকে উদেশ্য করে হেবা বা দান করা হচ্ছে, তাকে সম্পত্তি গ্রহণ করতে হবে।

৩। হেবা বা দানকৃত সম্পত্তি  তৎক্ষণাৎ দখল হস্তান্তর করা।

 

কে হেবা বা দান করতে পারেন?

যে কোন প্রাপ্ত বয়স্ক মুসলিম পুরুষ বা নারী হেবা (Hiba) করতে পারেন,  যা কিনা কোন প্রতারণা বা বলপূর্বক হয় নি। একজন মুসলিম বিবাহিত নারী ও দান করতে পারেন। নিম্নোক্ত শর্ত  সমূহ পূরণ করে এমন ব্যক্তি দান করতে পারেনঃ-

  •  দাতাকে মুসলিম হতে হবে হেবা করা জন্য।
  • প্রাপ্ত বয়স্ক হতে হবে।
  • দাতাকে মানসিক ভাবে সুস্থ হতে হবে।
  • দাতার দান করার অধিকার থাকতে হবে।

 

হেবা বা দানে নিবন্ধন

দান মৌখিক বা লিখিত রূপে করা যায় তবে দানের দলিল অবশ্যই নিবন্ধন করে নিতে হবে।  ১-০৭-২০০৫ পর থেকে হেবা বা দানকৃত সম্পত্তি নিবন্ধন করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

হেবা কি বাতিলযোগ্য?

মুসলিম  আইনঅনুসারে স্বেচ্ছায় সম্পাদিত যে কোন বিনিময় বাতিলযোগ্য অতঃপর দান ও বাতিলযোগ্য। ‍ যদিও দান বাতিল করার ক্ষেত্রে ভিন্নতা আছে দখল হস্তান্তরের  পূর্বে এবং হস্তান্তরের পরে

  •  দখল হস্তান্তরের পূর্বে: দাতা কর্তৃক দানকৃত সম্পদ দখল হস্তান্তরের পূর্বে যে কোন সময় বাতিল করতে পারেন।
  • দখল হস্তান্তরের পরে: যখন গ্রহীতাকে দানকৃত সম্পদের দখল হস্তান্তর করা হয়  তখন শুধু মাত্র আদালতের আদেশ বা গ্রহীতার  সম্মত্তির সাপেক্ষে দান বাতিল করা যায়।
Related Posts
No related posts for this content